ডোমেইন ও হোস্টিং কি? কিভাবে কিনবেন? স্পেমার থেকে বাঁচুন!

হ্যালো টেকমশাইবাসী! সবার সুস্থতা কামনা করছি।

শুরু কথা :

ব্লগ বা ওয়েবসাইট থেকে টাকা ইনকামের ব্যাপারে আমরা যদি একটু জেনে থাকি, তাহলে হয়তো এটাও জানবো যে- আমরা যতই পরিশ্রম করি ফ্রি হোস্টিং থেকে খুব বেশি পরিমাণে টাকা ইনকাম সম্ভব নয়।

কারণ ইউজার ধরে রাখা ও সার্চ ইঞ্জিন গুলো থেকে অনেক বেশি পরিমাণে অর্গানিক ট্রাফিক পাওয়ার জন্য ওয়েবসাইট কে ফাস্ট রাখা, সঠিকভাবে SEO করা,বেশ কিছু প্রয়োজনীয় টুলস ও ফিচার রাখা ইত্যাদি বিষয় গুলো আমাদের খুব বেশি প্রয়োজনীয় হয়ে উঠে।

তারজন্য আমাদেরকে WordPress এর মাধ্যমে Website পরিচালনা করতে হয়।

তখনই আমাদের জন্য ডোমেইন এবং হোস্টিং কেনা আবশ্যক হয়ে পরে।
কারণ ডোমেইন, হোস্টিং কেনার মাধ্যমেই আমরা আমাদের ওয়েবসাইটের পুরোপুরি কন্ট্রোল নিতে পারি।

তো আজ আমাদের টিপ্স হবে,

ডোমেইন ও হোস্টিং কি? কিভাবে কিনবেন?

এ বিষয়টি নিয়েই বিস্তারিত কথা বলবো।

domain names 1772243 640

কিভাবে কিনবেন? কোথা থেকে কিনবেন?
আমি কোন কোম্পানির সেবা গ্রহণ করছি?
এ সব গুলো বিষয় আর্টিকেলে পুরোপুরি ভাবে উঠে আসবে।

ডোমেইন(Domain) কি?

সহজভাবে বলতে গেলে,
ডোমেইন হচ্ছে আপনি আপনার ওয়েবসাইটের জন্য যে নাম রাখবেন সে পুরো নামটা আন্তর্জাতিকভাবে রেজিষ্ট্রেশন করে রাখাই হলো ডোমেইন কিনে নেয়া।

যেমন, আমাদের ওয়েবসাইটের নাম হচ্ছে Techmoshai.info এ পুরো নামটাই হচ্ছে ডোমেইন।

আপনি একবার যে নামটা আপনার ব্লগ বা ওয়েবসাইটের জন্য ডোমেইন হিসেবে কিনে নিবেন, তা পৃথিবীর সমস্ত ইন্টারনেট ডাটা সেন্টার ও ডোমেইন রেজিষ্ট্রেশন অফিস গুলোতে সেভ হয়ে যাবে।

তাই একবার কিনে নেওয়া ডোমেইন আপনি আর কখনোই কোনভাবে পরিবর্তন করতে পারবেন না।

অন্য কেও দ্বিতীয়বার আর তা কিনে নিতে পারবে না যতক্ষণ না আপনি সে ডোমেইন নামটা ছেড়ে দিচ্ছেন বা বিক্রি করে দিচ্ছেন।

তো আশা করি ডোমেইন বিষয়টা কি তা, আপনার কাছে ক্লিয়ার হয়ে গেছে।

এখন আমরা ডোমেইনের শেষে যে,
.com, .info, .net ইত্যাদি গুলো দেখি তাহলে এগুলো কি?

এগুলোকে বলা হয় এক্সটেনশন। সাধারণত .Com, .Info, .Net .store, .org এ এক্সটেনশন গুলোর ব্যবহার বেশি লক্ষ্য করা যায়। তাই এগুলোকে বলা হয় TLD বা Top level domain.

যেহেতু এগুলো টপ লেভেল ডোমেইন তাই এগুলো গুগল , বিং বা ইয়াহুর মতো সার্চ ইঞ্জিন গুলোতে বেশি প্রাধান্য পায় এবং সার্চ রেজাল্টে আগে দেখানো হয়। যা SEO এর ক্ষেত্রে প্রচুর ভূমিকা রাখে।

আর এ জন্যই এ টপ লেভেল ডোমেইন গুলোর দামও তুলনামূলকভাবে একটু বেশি হয়ে থাকে।

এ এক্সটেনশন গুলো একেকটা একেকরকম অর্থ দেয়।

যেমন,
.com(commpersial)
.info(information)
.net(network)
.org(organisation)
.edu(education)

আবার কিছু ডোমেইন এর শেষে .Bd, .In ইত্যাদি দেখা যায় এগুলোকে বলে CTLD বা country based top level domain.

ওয়েবসাইটি বিশেষ করে কোন দেশের ইউজারদের জন্য তৈরী করা এটা বুঝায়।

যেমন,

.bd(Bangladesh)
.in(India)
.us(USA)

আপনি চাইলে এগুলো(CTLD) আপনার সাইটে যোগ করতে পারেন। না করলেও কোন সমস্যা নেই।

আপনি কোন ধরনের Domain নিবেন?

আপনি আপনার পছন্দ মতো যে কোন নাম নিতে পারেন। যা অন্য কেউ কিনে নেয়নি। ডোমেইন কেনার যে কোন ওয়েবসাইটে নাম লিখলে ওরাই বলে দিবে এ নামটা কি Available নাকি অন্য কেউ কিনে নিয়েছে।

তবে আমি বলবো, আপনার ওয়েবসাইট টি যে বিষয়ের সাথে রিলেটেড সে রকম কোন নাম ব্যবহার করবেন। তাহলে ইউজার যারা আছেন তারা আপনার ওয়েবসাইট টি দেখলেই বুঝতে পারবেন ওয়েবসাইটটি কি জন্য তৈরী করা হয়েছে ।

খুব বুঝে শুনে Domain নাম কিনবেন। কারণ আমি আগেই বলেছি একবার কিনে নেয়া Domain আপনি আর কখনোই পরিবর্তন করতে পারবেন না।

এবং মনে রাখবেন, প্রচার প্রচারণা ও মার্কেটিং এর জন্য নামটা গুরুত্বপূর্ণ।

“প্রচারেই প্রসার”

আর এক্সটেনশন হিসেবে আমি .Com ব্যবহারের কথা বলবো। কারণ এটা সবচেয়ে বেশি পরিমাণে ব্যবহার করা হয়। আর তাছাড়া সাধারণ মানুষ, যাদের নেট সম্পর্কে খুব ভালো জানা নেই। তারা ওয়েবসাইট বলতে সাধারণত .com ই বুঝে থাকেন।

তবে আপনার যদি ইনফরমেশন বেইজড কোন সাইট হয়। যাতে আপনি নলেজ শেয়ার করবেন, বা কোন বিষয়ে ইউজারদের কোন ইনফরমেশন দিবেন তাহলে আপনি .info ও ইউজ করতে পারেন।

এটাও একটি টপ লেভেল ডোমেইন। যেমন আমরা আমাদের সাইট Techmoshai.info তে .Info ব্যবহার করেছি।

এতক্ষণ যদি আপনি মনোযোগ দিয়ে পড়ে থাকেন। তাহলে, Domain বিষয়টি আপনার পুরোপুরি জানা হয়ে গেছে।

হোস্টিং(Hosting) কি?

হোস্টিং হলো আপনার ব্লগ বা ওয়েবসাইটটি রাখার জায়গা। আপনি যে ব্লগটি তৈরী করেছেন এবং তাতে নিয়মিত আর্টিকেল, ছবি, বা কোন পন্যের রিভিউ দিয়ে তা বিক্রি করছেন।

cloud 3406627 640

সে আর্টিকেল, ছবি বা ভিডিও রাখার জন্য কম্পিউটারের একটা জায়গার প্রয়োজন হয়, সে জায়গা বা Storage কিনে নেওয়াই হলো হোস্টিং কিনে নেয়া।

সোজাভাবে বলতে গেলে, ঠিক যেমন আমরা আমাদের প্রয়োজনীয় ছবি/ ভিডিও গুলো ফোনে বা পিসির হার্ডড্রাইভে সেভ করে রাখি, বিষয়টি অনেকটা সেরকম।

Hosting কিভাবে কাজ করে?

আমাদের কিনে নেয়া হোস্টিং এর লোকেশন পৃথিবীর যে কোন জায়গায় হতে পারে।
যখন কোন ইউজার গুগল সার্চে কোন জিনিস খুঁজে আমাদের ওয়েবসাইটের এড্রেস পায় আর তাতে ক্লিক করে, তখন তা প্রথমে আমেরিকা বা অন্য কোন দেশে (যেখানে আমাদের হোস্টিং সার্ভার অবস্থিত) যায়।

তারপর সেখান থেকে আমাদের তথ্য খুঁজে বের করে নিয়ে এসে ফোন বা কম্পিউটার স্ক্রিনে প্রকাশ করে।

এ কাজটা হয় খুবই দ্রুত গতিতে। আর আমরা তখন আমাদের ডিভাইসে সে তথ্যটি দেখতে পারি।

ইউজার যেহেতু যে কোন সময় তথ্য খুজতে পারে, তাই হোস্টিং সার্ভিস আমরা আমাদের নিজস্ব পিসিতে রাখতে পারি না। কারণ আমাদের পিসি আমরা ২৪ঘন্টা অনলাইন কানেকশন দিয়ে চালু করে রাখিনা বা রাখতে পারি না।

techmoshai hostbd

যা রাখতে পারে আমাদের হোস্টিং সার্ভিস প্রোভাইডারগন। তারা অনেক পাওয়ারফুল কম্পিউটারে অনেক বেশি পরিমাণে জায়গা নিয়ে তাদের ডাটা সেন্টার তৈরী করে। আর আমরা সেখান থেকে আমাদের প্রয়োজন মত ১জিবি/২জিবি / ৪জিবি /১০ জিবি ডাটা স্টোরেজ ভাড়া নিয়ে আমাদের ওয়েবসাইট চালু রাখি।

আশা করি ডোমেইন ও হোস্টিং এর ব্যাপারটা বুঝে গেছেন।

হোস্টিং কতটুকু কিনবেন?

অবশ্যই আপনি আপনার ওয়েবসাইটের সাইজ অনুযায়ী Hosting প্যাক কিনবেন। শুধু শুধু অতিরিক্ত জায়গা কিনে টাকা নষ্ট করার কোন মানে হয়না।

যদি আপনি আপনার ওয়েবসাইটে খুব বেশি পরিমাণে ছবি বা ভিডিও আপলোড করেন তাহলে বেশি Storage এর প্রয়োজন হতে পারে। ৫জিবি ১০জিবি বা তারও উপরে।

আর অন্যদিকে যদি আপনি ভাবছেন, একটি আর্টিকেল বেইজড ব্লগ তৈরী করবেন। যাতে আপনি শুধু আপনার লেখা আর লেখার সাথে টুকটাক ছবি প্রকাশ করবেন।

Also Read,

কিভাবে একটি সুন্দর ও কোয়ালিটিসম্পন্ন আর্টিকেল লিখবেন?

তাহলে আপনি শুরুতে ১জিবি বা ২জিবির প্যাক কিনে নিতে পারেন।

পরবর্তীতে প্রয়োজন বোধ করলে, আপনি আপনার প্যাকেজটি যতটুকু দরকার ততটুকু আপগ্রেড করে নিতে পারবেন।

Hosting বিক্রি করে এমন সকল কোম্পানি-ই ফ্রি অফ কস্ট(ফ্রিতে) প্যাকেজ আপগ্রেড করার সুবিধা দিয়ে থাকে।

কিনবেন কোথা থেকে?

শুরুতেই বলে নেই। যদি আপনার পেপাল, পেয়নিয়ার বা মাস্টার কার্ড থাকে তাহলে ১০০% ট্রাস্টেড কিছু ডোমেইন সেলার কোম্পানি আছে, তাদের থেকে নিঃসন্দেহে আপনি কিনতে পারেন।

এরকম জনপ্রিয় ও বিশ্বাসযোগ্য কিছু কোম্পানি হলোঃ

এদের থেকে ডোমেইন হোস্টিং কিনলে সিকিউরিটির জন্য আপনার কোন চিন্তা করা লাগবে না। সাথে সাথে আপনি সাপোর্ট ও পাবেন অনেক বেশি পরিমাণে।

Hosting সংক্রান্ত যে কোন প্রবলেম ওদেরকে বললে ওরা ঠিকঠাকভাবে সমাধান জানিয়ে দিবে।

তাই আবারো বলছি, আপনার যদি মাস্টার কার্ড বা ভেরিফাইড পেপাল থাকে আপনি এ কোম্পানিগুলো থেকে ডোমেইন ও হোস্টিং কিনে নিতে পারেন।

মাস্টার কার্ড যদি না থাকে?

যদি আপনি মনে করছেন আপনার ওয়েবসাইটের জন্য ডোমেইন হোস্টিং কিনবেন, কিন্তু আপনার কাছে মাস্টার কার্ড বা Dual currency সাপোর্ট করে এরকম কোন কার্ড নেই। তাহলে আপনি কি করবেন?

তাহলে আমি আপনাকে পরামর্শ দেবো, সব দেশেই লোকাল কিছু কোম্পানি আছে, যারা ভালো সার্ভিস দিবে তাদের থেকে ডোমেইন বা হোস্টিং কেনার জন্য।

তারা দেশি পেমেন্ট গেটওয়ে সার্ভিস যেমন,

Roket, bKash, Nogod, Dutch bangla, Nexus pay ইত্যাদি সাপোর্ট করে।

ফলে খুব সহজেই টাকা পরিশোধ করা যায়।

তবে কেনার আগে অবশ্যই খুব যাচাই বাচাই করে তারপর কিনবেন।

আমি আমার ব্যাক্তিগত অভিজ্ঞতার কথা বলি, আমি যখন ডোমেইন ও হোস্টিং কিনবো তখন আমার কাছে কোন মাস্টার কার্ড ছিলো না।

একপ্রকার বাধ্য হয়েই আমি আমাদের লোকাল কোম্পানি গুলো থেকে ডোমেইন এবং হোস্টিং কিনে ফেলি। তবে কেনার আগে কমপক্ষে ১৫-২০ টা কোম্পানি যাচাই বাচাই করি। কোন ভাবেই ঠকতে চাইনি।

আমি নিচে ভালো কিছু লোকাল কোম্পানির নাম বলে দিবো, যাদের থেকে আপনি ডোমেইন এবং হোস্টিং কিনতে পারেন।

বাংলাদেশের ভালো ২টি হোস্টিং কোম্পানি,

কেন রিকমেন্ড করছি?

এ দুটি কোম্পানিকে রিকমেন্ড করার প্রথম কারণ হলো এদের সার্ভিস ও রিভিউ ভালো।

আর দ্বিতীয় কারণ হলো এদের কাস্টমার সাপোর্ট খুব ভালো।

একজন বিগেইনার হিসেবে হাজারো সমস্যায় আপনি পরতে পারেন। সবাই পরে। তার জন্য কাস্টমার সাপোর্টের অনেক বেশি প্রয়োজন পরে

তাই, আমি নিজে Doman ও Hosting কেনার আগে অনেকগুলো কোম্পানির সাথে কথা বলে উনাদেরকে ভালো মনে হয়েছে।

তবে যদি,

আপনার পরিচিত কোন কোম্পানি থেকে থাকে। যাদের সার্ভিস ভালো। তাহলে সে কোম্পানি গুলো থেকেও আপনি ডোমেইন ও হোস্টিং কিনে নিতে পারেন।

তবে অবশ্যই খেয়াল রাখবেন তাদের আপটাইম যেন ৯৯% হয় ও ফাস্ট হয়। তাহলে আপনার সাইট কখনো ডাউন থাকবে না।

পুরো আর্টিকেলে আজ আমরা শিখতে পারলাম,

  • Domain & Hosting কি?এর প্রকার।

  • কেনার আগে কোন কোন বিষয়গুলো লক্ষ্য করা প্রয়োজন?
  • ডোমেইন ও হোস্টিং কোথা থেকে কিভাবে কিনবেন?

আমাদের শেষ কথা,

ডোমেইন ও হোস্টিং সংক্রান্ত কোন প্রশ্ন থাকলে,

বা,

অন্য কোন ভালো কোম্পানির নাম জানা থাকলে আপনি কমেন্ট সেকশনে জানিয়ে দিতে পারেন, তাতে অন্যদের উপকার হবে।

This Post Has One Comment

Leave a Reply